Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

এই মুহূর্তে রাজ্য

দুয়ারে সরকারের পর এবার ‘দুয়ারে ত্রাণ’

বঙ্গবাণী ব্যুরো নিউজ :দুয়ারে সরকারের পর গতকাল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন দুয়ারে ত্রাণ। তিনি বলেছিলেন ইয়াশ বিপর্যস্ত এলাকাগুলিতে এবার মানুষের দুয়ারে দুয়ারে ত্রাণ পৌঁছে দেবে রাজ্য সরকার। সেই ত্রাণের জন্য বরাদ্দ হয়েছে ১ হাজার কোটি টাকা এবং কোন বিভাগ কোন দিকটি দেখাশোনা করবে এবং কোন খাতে কত করে ত্রাণ মিলবে তার বিস্তারিত হিসাব পাওয়া গেল নবান্নের তরফে। কৃষি থেকে শুরু করে বিপর্যয় মোকাবিলা পর্যন্ত কোন ক্ষেত্রে কত ত্রাণ ধার্য হয়েছে তা নিয়ে একটি নির্দেশিকা জারি হয়েছে ‌। এবং সেটির প্রতিলিপি রাজ্যের সমস্ত সরকারি দপ্তরে এবং উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

গতবছর আমফানের ত্রাণ সামগ্রী লুটের অভিযোগ উঠেছিল শাসকদলের বিভিন্ন নেতার ওপর । দেখা গিয়েছিল পঞ্চায়েত শাসক দলের একাংশ নেতা নিজের ও পরিবারের নামে ত্রাণের টাকা তুলে নিয়েছিলেন, আসল বিপর্যস্ত মানুষরা টাকা পাননি অনেকেই। তাই এবারে আর কোন ঝুঁকি না নিয়ে বিভিন্ন দপ্তরের হাতে কাজ ভাগ করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবং নিজেও সে বিষয়ে নজর রাখবেন তা উল্লেখ করেছেন। বৃহস্পতিবারের বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী জানান ইয়াশ এর জেরে প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী প্রায় ১৫ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। তবে দুর্যোগ কবলিত এলাকায় গিয়ে সেই অঞ্চলের প্রশাসনিক আধিকারিকদের সাথে বৈঠক এবং অঞ্চল পরিদর্শনের পর সে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সম্পর্কে ধারণা আরও স্পষ্ট হবে।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন , ৩ জুন থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত দুয়ারে ত্রাণের কাজ চলবে। দুয়ারে সরকারের মতোই দুয়ারে ত্রাণের জন্য গ্রামে গ্রামে ব্লক ক্যাম্প করবে সরকার । বিপর্যস্ত মানুষদের সেখানে গিয়ে ক্ষতিপূরণের জন্য আবেদন জানাতে হবে ।আগামী ১৯ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত আবেদন খতিয়ে দেখা হবে । ১ জুলাই থেকে শুরু হবে টাকা দেওয়ার কাজ। সরকারি ব্যাংক একাউন্টে পৌছে যাবে টাকা।

সরকারি নির্দেশিকা অনুযায়ী ক্ষতিপূরণের পরিমাণ নিম্নের তালিকা স্বরূপ হতে চলেছে:

১. শস্য নষ্ট হওয়ার খাতে ক্ষতিগ্রস্ত চাষিরা অন্তত ১০০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ২৫০০ টাকা পাবেন। কৃষি দপ্তর এই ত্রাণবিষয়ক দেখাশোনা করবে।

২. দুর্যোগে অনেকের গৃহপালিত পশু মারা গেছে বা জলের তোড়ে ভেসে গিয়েছে। রাজ্য প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তর এর তরফ থেকে মহিষ কিংবা গরুর ক্ষতিপূরণ বাবদ ৩০ হাজার টাকা এবং ছাগল, ভেড়া, শুয়োর মারা গেলে কিংবা ভেসে গেলে ৩০০০ টাকা দেওয়া হবে। ভারবাহী পশু মহিষের ক্ষতিপূরণ হিসেবে ২৫০০০ এবং বাছুরের জন্য ১৬০০০ টাকা আর্থিক সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

৩. ইয়াশ এর ফলে অনেকের বাড়ি পুরোপুরি ভেঙ্গে গেছে , অনেকের আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।‌ বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর পুরোপুরি বিধ্বস্ত এবং আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলি মেরামতির দায়িত্ব নিয়েছেন । একেবারে ভেঙে পড়া বাড়িগুলির জন্য ক্ষতিগ্রস্থদের ২০ হাজার টাকা এবং আংশিক ক্ষতিগ্রস্তদের ৫০০০ টাকা করে দেওয়া হবে।

৪. রাজ্য মৎস্য দফতরের তরফ থেকে জেলেদের পুরোপুরি ভেঙে যাওয়া নৌকা সারাতে ৫০০০ টাকা, কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত নৌকা মেরামতের জন্য ৫০০ টাকা এবং জাল কেনা বাবদ ২৬০০ টাকা সাহায্য দেওয়া হবে।

৫. ক্ষুদ্র এবং মাঝারি শিল্প দপ্তর বস্ত্রবয়ন এবং তাঁতিদের ত্রাণের দিকটি দেখছেন। তাঁতিদের সরঞ্জাম মেরামত, কাঁচামাল নষ্ট এবং শোরুম নষ্ট হওয়া বা গুদাম নষ্ট হওয়ার খাতে ত্রাণ দেওয়া হবে। যন্ত্রপাতি এবং কাঁচামাল কেনাকাটা বাবদ ৪১০০ টাকা করে এবং গুদাম ক্ষতিগ্রস্ত হলে প্রত্যেককে ১০হাজার টাকা আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে।

৬. বিভিন্ন জায়গায় পানের বরজ জলমগ্ন হয়েছে। তাই পানচাষীদের উদ্যানপালন দপ্তর এর তরফ থেকে ৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সাহায্য করা হবে।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *