হুল উৎসব থেকে তির-ধনুক নিয়ে হামলা, তিরবিদ্ধ উপ-প্রধানের ভাই, শালবনি কোবরা ক্যাম্পে জওয়ানের আত্মহত্যা, করোনায় মৃতদের পরিবারকে দিতে হবে ক্ষতিপূরণ, কেন্দ্রকে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের, কসবা কাণ্ডে অভিযুক্ত দেবাঞ্জন দেবকে মনোরোগী বলে দাবি করলেন আইনজীবী, বালি তোলা সহ নানা সমস্যার সমাধান করতে হবে বৈঠকে বললেন মন্ত্রী মানস ভুঁইয়া, পরিত্যক্ত পিপিই কিট পরে শহরের রাস্তায় ঘুরছে মানসিক ভারসাম্যহীন, আতঙ্ক মেদিনীপুরে, জনপ্রিয় অভিনেতা বর্তমানে মাছ ব্যবসায়ী, হলফনামা জমা দেবার ক্ষেত্রে জরিমানা দিতে হল পাঁচ হাজার টাকা, আজ ঘোষণা হতে পারে নারদ মামলার রায়, বুধবার থেকে পনেরো শতাংশ ভাড়া বাড়ছে ওলা উবেরের,

Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

এই মুহূর্তে

দিল্লির জন্য বরাদ্দ অক্সিজেন উত্তরপ্রদেশে পাঠানোর অভিযোগ কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে

বঙ্গবাণী ব্যুরো ডেস্ক:- ভারতে করোনার দ্বিতীয় স্রোতের মধ্যেই দেশজুড়ে শুরু হয়েছে মেডিক্যাল অক্সিজেনের হাহাকার।বিনা চিকিৎসাতেই মৃত্যু ঘটছে শয়ে শয়ে মুমূর্ষু করোনা রোগীর।সবথেকে বেশী এই মৃত্যু মিছিলে সামিল হয়েছে রাজধানী।গত কয়েক দিন ধরেই রাজধানীর হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেনের অভাবে অকালে চলে যাচ্ছে একের পর এক তরতাজা প্রাণ। চেয়েও মিলছে না পর্যাপ্ত অক্সিজেন।এই ভয়াবহ পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে দিল্লি হাইকোর্টের তরফে জানানো হয়েছিল অক্সিজেন সরবরাহের ক্ষেত্রে যদি কেউ বাধা দেয় সেক্ষেত্রে তাঁকে ফাঁসিতে ঝোলানো হবে।নির্দেশিকা ঘোষণা হবার দুদিন কাটতে না কাটতেই সেই অভিযোগের দায়ভার পরল স্বয়ং কেন্দ্রীয় সরকারের ওপর।এই ধরনের বিস্ফোরক মন্তব্যটি করেছে অক্সিজেন জোগানকারী সংস্থা আইনক্স।যা নিয়ে কার্যত শোরগোল পড়ে গেছে দেশের অভ্যন্তরে।

প্রসঙ্গত, অক্সিজেন জোগানকারী সংস্থা আইনক্স গোটা দেশের বিভিন্ন রাজ্যগুলির প্রায় ৮০০ টি হাসপাতালে অক্সিজেন সরবরাহ করে।শুধুমাত্র দিল্লিই এতটা শোচনীয় অবস্থায় রয়েছে কেন তার প্রসঙ্গে আইনক্সের প্রধান সিদ্ধার্থ জৈন হাইকোর্টের কাছে অভিযোগ করে বলেন,” দিল্লির এই ভয়াবহ পরিস্থিতির জন্য একমাত্র কারণ দিল্লির জন্য পর্যাপ্ত অক্সিজেন দিল্লিতে না পাঠিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার পাঠাচ্ছে উত্তরপ্রদেশে।ফলে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে দিল্লিবাসীদের।হাহাকারের মাত্রা তীব্র রূপ ধারণ করছে দিন দিন।আমাদের কর্মকর্তারা দিন রাত পরিশ্রম করছে কার্যত নাওয়া খাওয়া ভুলে।অথচ দিল্লিকে এই বিপর্যয় থেকে মুক্তি দিতে পারছে না আমাদের সংস্থা “।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন আগেই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে মন্তব্য করে বলেছিলেন,”বাংলার অক্সিজেনের সাপ্লাই চেন উত্তরপ্রদেশে কেন নিয়ে যাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার?” এদিনের অক্সিজেনের সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান আইনক্সের প্রধান সিদ্ধার্থ জৈন কার্যত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই সুরেই সুর মেলালেন বলা চলে।এদিন তিনি দিল্লির হাইকোর্টে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে অভিযোগ করে বলেন,”দিল্লি সরকার আমাদের কাছে ১২৫ মেট্রিক টন অক্সিজেন পাঠানোর আবেদন করলেও কেন্দ্রীয় সরকার সেই আবেদনে সায় দেয়নি।কেন্দ্র থেকে বলা হয়েছিল মাত্র ৮০ টন অক্সিজেন দিল্লিতে পাঠানোর জন্য। এর জন্য কি আমরা দায়ী?কি করণীয় আমাদের?” সবশেষে তিনি হাইকোর্টের কাছে আবেদনও করেন যাতে অতি দ্রুত এই বিষয়ে কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে দিল্লি হাইকোর্ট।এখন অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে হাইকোর্টের তরফে কি নির্দেশিকা জারি করা হয় সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছে দিল্লিবাসী।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *