Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

এই মুহূর্তে

বিস্ফোরণের তদন্তে ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞের দল

বোমার আঘাতে মৃত শেখ আব্রাহাম

বঙ্গবাণী ব্যুরো, পূর্ব বর্ধমান : বর্ধমানের সুভাষপল্লীর বিস্ফোরণে মঙ্গলবার ঘটনাস্থলে এলো ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞের দল। অন্যদিকে রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশনের চেয়ারপার্সন অনন্যা চক্রবর্তীও এদিন আহত শিশুটিকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে দেখতে আসার পাশাপাশি মৃত শেখ আব্রাহামের বাড়িতেও আসেন তার পরিবারের লোকেদের সঙ্গে দেখা করার জন্য। ক্ষতিপূরণের বিষয়ে আশ্বস্ত করেন নিহত শিশুর পরিবারের লোকেদের। বিস্তারিত রিপোর্টও চেয়েছে কমিশন জেলার পুলিশ সুপারের কাছ থেকে। ফরেন্সিক দলের প্রধান চিত্রাক্ষ সরকারের নেতৃত্বাধীন দুই সদস্যের  রসিকপুরে বিস্ফোরণস্থল থেকে  বোমার বিভিন্ন নমুনা সংগ্রহ করেন। পাথরের টুকরো,লোহার স্প্রিং সহ বিভিন্ন সামগ্রী দিয়ে এই বোমা তৈরি করা হয়েছিল বলে প্রাথমিকভাবে অনুমান ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের। পারিপার্শ্বিক নমুনাও সংগ্রহ করেন তাঁরা।

নমুনা সংগ্রহে ব্যস্ত ফরেন্সিক দলের সদস্যরা ।

অন্যদিকে মঙ্গলবার সকালে মৃত শিশুটির বাড়িতে আসেন নিহত সিপিএম নেতা প্রদীপ তা এর মেয়ে ও বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী পৃথা তা। স্বজন হারনোর যন্ত্রনা তিনি জানেন। এদিন মৃত শিশুর মা সোনিয়া খাতুনের সঙ্গে কথা বলেন পৃথা। তাঁকে স্বান্তনা দেবার সময়ে সোনিয়া পৃথার কোলেই অজ্ঞান হয়ে পড়ে। প্রতিবেশীরা তাঁকে কোনমতে সুস্থ করে। সংবাদমাধ্যমের কাছে ক্ষোভ উগরে পৃথা বলেন, ‘আমি কোন রাজনৈতিক প্রচার করতে, ভোট পাবার আশায় এখানে আসনি। স্বজন হারানোর যন্ত্রনা আমি জানি। কেউ কি পারবে মায়ের কোলে ওই ছেলেটিকে ফেরত দিতে? সবাই জানে কিভাবে এখানে বোমা এলো,  এই ক্লাব দখল কে কেন্দ্র করে যে খেলা কিছুদিন আগে শুরু হয়েছে সেই খেলারই বলি হতে হলো শিশুটিকে। খেলা তো শুরু হয়ে গেছে।  একটা দল দেশটা কে বিক্রি করার খেলা শুরু করেছে।  আর এ রাজ্যের একটা দল এভাবে ছোট ছোট শিশুদের প্রাণ নিয়ে খেলা শুরু করেছে।  কোথায় কমিশন ? আমরা কি বক্তব্য রাখছি, কি করছি তার হিসেব নেবার জন্য ক্যামেরা ঘুরে বেড়াচ্ছে।  আর এই অবস্থার জন্য কমিশন কী পদক্ষেপ নেবে ?’ তদন্তের কথা উঠতেই বিদ্রুপ হাসি তার মুখেও।’ 

সোনিয়া খাতুন কে স্বান্তনা পৃথা তা – এর

এদিন নিহত শেখ আব্রাহামের বাড়ির সামনে ভিড় সকাল থেকেই। মাঝে মধ্যেই এক মহিলার বুকফাটা আর্তনাদ ভেসে আসছে, ‘খেলা শেষ হয়ে গেল।’ 

সোমবার সকালে বল ভেবে খেলা করতে গিয়ে বোমায় হাত পড়ে যায় এলাকার দুই শিশুর। মারা যায় শেখ আবাহাম। পেশায় গাড়ির চালক শেখ বাবলু বলেন, ‘এসব করে আমার ছেলেটা কি আর ফিরবে গো ?  আমি জানতে চাই কারা এই সর্বনাশ করার জন্য বোমাটা রেখেছিল।’ সে উত্তর নেই কারুর কাছেই। তবে স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এলাকার দখল নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই শাসক দলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে চরম উত্তেজনা ছড়িয়েছিল। এলাকা থেকে পুলিশ ব্যাগ ভর্তি বোমা উদ্ধার করে নিয়ে গিয়েছিল। এদিনের ঘটনার পিছনে শাসক দলের গোষ্ঠী কোন্দলের ছোঁয়াই রয়েছে বলে মনে করছে পুলিশের একটা মহল। অন্যদিকে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার ই ঘটনার বিস্তারিত রিপোর্ট নির্বাচন কমিশন ও রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর এর কাছে পাঠানো হয়েছে। মৃত শিশুর পরিবার কে বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের পক্ষ থেকে আর্থিক ক্ষতি পূরণ দেওয়া যাবে কিনা সে বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের সিধান্তের উপরে নির্ভর করছে জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরা।  

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *