Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

এই মুহূর্তে

অক্সিজেন সরবরাহে কেউ বাঁধা দিলে তাঁর ফাঁসি হবে,নির্দেশ দিল্লি হাইকোর্টের

বঙ্গবাণী ব্যুরো ডেস্ক:দেশে একদিকে যেমন ভয়াবহভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ অন্যদিকে বিভিন্ন জায়গা থেকে মিলছে অক্সিজেনের ঘাটতির অভিযোগ। একেই কার্ফু, ভ্যাকসিন, লকডাউন কোনো কিছুতেই থামছে না করোনা সংক্রমণ তার উপরে করোনার থাবা গিয়ে সোজা পড়েছে অক্সিজেন সঙ্কটের ওপরে।বিনা চিকিৎসাতেই প্রাণ হারাচ্ছে শয়ে শয়ে মুমূর্ষু করোনা রোগী। নিরুপায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় দিল্লির পরিস্থিতি আরও শোচনীয়।গত দুদিনে রাজধানীর হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেনের অভাবে অকালে চলে যাচ্ছে একের পর এক তরতাজা প্রাণ।চেয়েও মিলছে না অক্সিজেন।এই ভয়াবহ পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে এদিন দিল্লি হাইকোর্টের তরফে কড়া ভাবে হুঁশিয়ারি বার্তা প্রদান করা হল কেন্দ্র এবং সকল রাজ্য সরকারের পক্ষে। নির্দেশিকায় স্পষ্টতই বলা হয়েছে, করোনা অতিমারীর সময় কেন্দ্রীয় এবং রাজ্য সরকারের কোনো প্রকার গাফিলতি বরদাস্ত করা হবে না। সর্বত্র, স্বাভাবিক রাখতে হবে অক্সিজেনের সরবরাহ।অক্সিজেন সরবরাহের ক্ষেত্রে কেউ যদি বাঁধা দিয়ে থাকে তাকে ফাঁসি কাঠে ঝোলানো হবে।যাতে কোনো প্রকার অক্সিজেন সরবরাহে ব্যাঘাত না ঘটে তার সম্পূর্ণ খেয়াল রাখতে হবে স্থানীয় প্রশাসনের আধিকারিকদের।

প্রসঙ্গত, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল বারবার কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে অক্সিজেন সরবরাহের জন্য আগাম আবেদন করেন।এমনকি গতকাল ভার্চুয়াল বৈঠকেও তিনি দিল্লির অক্সিজেনের ঘাটতির প্রসঙ্গ টেনে আনেন।তিনি আবেদন করেছিলেন ৪৮০ মেট্রিক টন অক্সিজেনের কিন্তু গতকাল পযন্ত কেন্দ্রের তরফে রাজধানীতে পাঠানো হয়েছে মাত্র ২৯৭ মেট্রিক টন মেডিক্যাল গ্যাস। ফলে,অক্সিজেনের হাহাকার চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে দিল্লিতে। গতকাল জয়পুর গোল্ডেন হাসপাতালেই অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু হয়েছে ২০ জন করোনা রোগীর।এছাড়াও, গত ২ দিন আগে স্যার গঙ্গারাম হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবেই মৃত্যু হয়েছে ২৫ জন করোনা রোগী র। একের পর এক মৃত্যু ঘটেই চলেছে দিল্লিতে।চিকিৎসক, স্বাস্থ্য কর্মীদের চোখের সামনেই চলে যাচ্ছে একের পর এক প্রাণ।বিনা চিকিৎসাতেই মৃত্যু মিছিলে সামিল হচ্ছে রাজধানী। ফাঁসির মন্তব্য টেনে এনে দিল্লি হাইকোর্টের নির্দেশিকা একথা স্পষ্টই বুঝিয়ে দিচ্ছে করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় সরকারের ভূমিকাতে রীতিমতো ক্ষুব্ধ হাইকোর্টও।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *