Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

রাজ্য

অধিকারী পরিবারের নিরাপত্তায় এবার কেন্দ্রীয় আধা সামরিক বাহিনী

বঙ্গবাণী ব্যুরো নিউজ :এবার কেন্দ্রের নজরে পূর্ব মেদিনীপুরের অধিকারী পরিবারের দুই লোকসভা সাংসদ শিশির অধিকারী ও দিব্যেন্দু অধিকারী। বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করার পর শুভেন্দু অধিকারীকে দেওয়া হয়েছিল জেড ক্যাটাগরির নিরাপত্তা। আর এবার শিশির অধিকারী ও দিব্যেন্দু অধিকারীকে ওয়াই প্লাস নিরাপত্তা দিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেয়ার পর তাঁর হাত ধরে ভাই সৌমেন অধিকারীও যোগ দেন গেরুয়া শিবিরে। আর নির্বাচনী প্রচারের সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সভায় যোগ দিয়েছিলেন কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী। দিব্যেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ না দিলেও তার অবস্থান নিয়ে অসন্তুষ্ট তৃণমূল। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জেলা নেতৃত্ব রাজ্য নেতৃত্বকে জানিয়েছে বলে জানা যায়। আর ঠিক তার আগেই এই ওয়াই প্লাস ক্যাটাগরির নিরাপত্তা। প্রত্যেক সংসদের সাথে সিআরপিএফের ১১ জন করে রক্ষী থাকবেন। এবং এই বিষয়ে সিআরপিএফকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ এর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রে খবর।

১৯শে ডিসেম্বর মেদিনীপুরে অমিত শাহের সভায় শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই ধীরে ধীরে অধিকারী পরিবারের সাথে তৃণমূলের দূরত্ব সৃষ্টি হয় । এবং ২১শে মার্চ এগরায় অমিত শাহের সভায় শিশির অধিকারী যোগদান করেন গেরুয়া শিবিরে। খাতা-কলমে শিশির অধিকারী এবং দিব্যেন্দু অধিকারী এখনও তৃণমূল সাংসদ হলেও দিব্যেন্দু অধিকারীকে তৃণমূলের কোনো কর্মসূচিতেই বহুদিন যাবৎ দেখা যায়নি। তাই এই কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীর নিরাপত্তার পর তিনিও যে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাবেন তা আশা করছেন অনেকেই।

প্রসঙ্গত, ২০০১ সালে কাঁথি দক্ষিণ কেন্দ্র থেকে বিধানসভা নির্বাচনে জিতে বিধায়ক হন শিশির অধিকারী। বিধায়ক হওয়ার আগে ২৫ বছরের বেশী সময় ধরে তিনি ছিলেন কাঁথি পুরসভার চেয়ারম্যান । ২০০৯ থেকে ২০১৯ কাঁথিতে টানা তিনবার লোকসভা নির্বাচনে তিনি জয়লাভ করেন। অর্থাৎ লোকসভা নির্বাচন হোক কিংবা বিধানসভা নির্বাচন সবকিছুতে অধিকারী পরিবারের জয়ের ধারা অটুট । এছাড়াও পূর্ব মেদিনীপুর ও পার্শ্ববর্তীজেলা গুলিতে অধিকারী পরিবারের প্রভাব বেশ ভালোই। তাই অনেকের ধারণা বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির আশাহত ফলের কারণেই এবার হয়তো অধিকারী পরিবারের হাত ধরেই বাংলায় ক্ষমতায় আসতে চাইছে বিজেপি।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *