Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

দেশ রাজ্য

ইয়াশে অসহায়, বুধে বিপর্যয়

বঙ্গবাণী ব্যুরো নিউজ :ফের আসছে ভরা কোটাল। আগামীকাল সকালেও আশঙ্কা করা হচ্ছে ভরা কোটালের। সতর্কবার্তা জারি করে রাজীব ব্যানার্জী ট্যুইট করে লিখেছেন “আপনারা ঘর থেকে কেউ বেরোবেন না। ঘরের ভিতর সুরক্ষিত থাকুন। প্রশাসনের বার্তা ও ঝড় সংক্রান্ত সতর্কবার্তার দিকে নজর রাখুন।” একই সাথে তিনি করোনার জন্যেও সতর্ক করে আরও লিখেছেন “ঘূর্ণিঝড় বিষয়ক সতর্কতার পাশাপাশি করোনা নিয়েও সতর্ক থাকুন। সব সময় মাস্ক পরুন, ঘন ঘন সাবান জল দিয়ে হাত ধুয়ে নিন। অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন “


সময়ের আগে ঘূর্ণিঝড়ের আসায় মুশকিলে উপকূলবাসীরা। সকাল ৯ টায় আছড়ে পড়ে বালেশ্বর উপকূলে। ইতিমধ্যেই উপকূলবর্তী জায়গায় বন্যার পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। ঘুর্নিঝড় ইয়াশের কারণে পশ্চিমাঞ্চলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বেশি। দীঘায় ইতিমধ্যে সাহায্যের জন্যে এনডিআরএফ নামানো হয়েছে। বাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ায় বেশ কিছু বাড়ির জলে ক্ষতি ও অনেক এসইউডি গাড়ি জলে ডুবে যাবার খবর পাওয়া গেছে। সরকার থেকে যথেষ্ট পরিমাণে সাহায্যের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

কলকাতায স্কাইলাইন থেকে একটু স্বস্তির খবর এলেও ১০টা থেকে বেলা ১২টার মধ্যে কলকাতাতেও টর্নেডোর আশঙ্কা করা হচ্ছে। নবান্নে কন্ট্রোল রুম থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সবাইকে অনুরোধ করেছেন বাড়ি থেকে না বেরোনোর জন্যে। ইতিমধ্যে গঙ্গায় জলস্তর বৃদ্ধিতে লকগেট বন্ধ করে রাখা হয়েছে। ল্যান্ডফল ওড়িশায় শুরু হতেই একের পর এক গ্রাম ভেসে গিয়েছে। গ্রামবাসীদের কয়েকজনের বক্তব্য গতবছর আমফানেও এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি। গোটা বঙ্গোপসাগর উপকূলের মধ্যে চাঁদিপুর উপকূল যা মোটামুটি শান্ত উপকূল বলে পরিচিত, ল্যান্ডফল হবার পরে সেখানেও ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে অনেক। ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়াতেও এর প্রভাব পড়েছে অনেক। গোবর্ধনপুরেও বাঁধ উপচে ঢুকছে জল। বলা হচ্ছে ইয়াশের সাথে ভরা কোটাল ও পূর্ণিমা একসাথে পড়ায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বেশি বলে বিপদ কোথাও আমফানের থেকেও বেশি হচ্ছে।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *