Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

জেলা

রেশন সামগ্রী পাচারের সময়ে গ্রামবাসীদের হাতে ধৃত ডিলার

বঙ্গবাণী নিউজ, মেমারি: রেশন গোডাউন থেকে তেল, গম,আটা পাচার করার সময়ে গ্রামবাসীদের হাতে বমাল ধরা পড়লেন রেশন ডিলার। ঘটনাটি মেমারি থানার বিজুর ২ গ্রামপঞ্চায়েত এলাকার বেনেগ্রামে। অভিযুক্ত রেশন ডিলারের নাম জয়দেব মুখোপাধ্যায়। এই ঘটনায় রাজনীতির রংও লেগেছে। অভিযুক্ত রেশন ডিলার এলাকার বিজেপি নেতা বলে অভিযোগ তৃণমূলের। অন্যদিকে বিজেপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, একেবারে পরিকল্পিতভাবে সাজিয়ে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। রেশন ডিলার জয়দেব মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘আমি রেশন নিতে আসা লোকেরা যারা সব চাল, গম, কেরসিন নিত না তাদের কাছ থেকে কিনে নিয়েছি। সেই মালই পাঠানোর সময়ে গ্রামের লোকেরা ধরে। আমার খাতায় হিসেবে কোন গড়মিল নেই।’

পাচার করার সময়ে গ্রামবাসীদের হাতে উদ্ধার হওয়া রেশন সামগ্রী — নিজস্ব চিত্র

মেমারি ২ ব্লকের বিজুর ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত বেনেগ্রামের রেশন ডিলার জয়দেব মুখোপাধ্যায় (শপ নং – ২২) এর বিরুদ্ধে অভিযোগ এলাকার সাধারণ মানুষকে তিনি ঠিকমতন জিনিস দিতেন না। পরে সেই সমস্ত জিনিস তিনি বাজারে বিক্রী করে দিতেন। এলাকার লোকেরা বিষয়টি জানলেও কোন প্রমান না থাকায় ব্যবস্থা নিতে পারেনি। শনিবার রাতে কেরসিন তেল সহ অনান্য জিনিস রিক্সা করে পাচার করার সময়ে এলাকার লোকেরা ধরে ফেলে। পরে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগও দায়ের করে গ্রামবাসীরা। বিষয়টি থানার পক্ষ থেকে জেলা খাদ্য নিয়ামকের কাছে জানানো হলে মেমারি ২ ব্লকের ফুড ইন্সপেক্টর সুশান্ত সরকার কে পাঠানো হয়। এলাকাবাসীর অভিযোগ, তদন্ত করে এই রেশন ডিলারের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে প্রশাসনকে। জয়দেব মুখোপাধ্যায়ের ডিলারের লাইসেন্স বাতিলেরও দাবি জানান তারা ।

অভিযুক্ত ডিলার কে দাঁড় করিয়ে কাগজপত্র পরীক্ষা করছেন ফুড ইন্সপেক্টার — নিজস্ব চিত্র

ফুড ইন্সপেক্টর সুশান্ত সরকার জয়দেব মুখোপাধ্যায়ের গোডাউন ও খাতা শীল করেন। সিল করার সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের কৃষি কর্মাধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইসমাইল বিজুর ২ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান বৃন্দাবন ঘোষ সহ স্থানীয় গ্রামবাসীরা। জেলা খাদ্য নিয়ামক আবির বালি বলেন, ‘আমরা তদন্ত করতে বলেছি। তদন্ত রিপোর্ট হাতে এলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ বর্ধমান জেলা পরিষদের কৃষি কর্মাধ্যক্ষ মহম্মদ ইসমাইল বলেন, ‘একবারে হাতেনাতে রেশনের মাল পাচার করার সময়ে বমাল ধরেছে গ্রামের মানুষরা। আমাদের সরকার বিনা পয়সায় যেখানে রেশন দিচ্ছে সেখানে রেশন শপ নম্বর ২২ এর ডিলার জয়দেব মুখোপাধ্যায় রাতের অন্ধকারে সেই মাল সাতগেছিয়ার বাজারে বিক্রী করার জন্য পাঠাচ্ছিলেন। ভোটের আগে বিজেপির যে নেতারা এসে বলে বেড়াচ্ছিল তৃণমূলের লোকেরা রেশনের চাল চুরি করেছে। এখন তারা এসে দেখে যাক তাদের নেতা কিভাবে রেশনের চাল, গম, কেরসিন পাচার করার সময়ে ধরা পড়েছে।’ বিজেপির মেমারি বিধানসভার প্রার্থী ভীষ্মদেব ভট্টাচার্য বলেন, ‘উনি বিজেপি করেন বলে আমার জানা নেই। রেশন ডিলাররা সাধারণত বিজেপি করে না, তারা তৃণমূল করে লুটে খাবার জন্য। আর উনি যে দলই করুক গরিব মানুষের খাবার নিয়ে যারা কালোবাজারি করছে তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন কঠোর ব্যবস্থা নিক। প্রয়োজনে আইনবদল করে ফাঁসির ব্যবস্থা করুক।’

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *