Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

জেলা রাজ্য

আসানসোলে তৃণমূল কংগ্রেসের গুন্ডারা সন্ত্রাস চালাচ্ছে,দাবী বিজেপি লিগ্যাল সেলের আইনজীবীর

বঙ্গবাণী ব্যুরো ডেস্ক,আসানসোল:  আসানসোল শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন বিধান সভা এলাকায় নির্বাচনের ফল বেরোনোর পরে তৃনমুল কংগ্রেসের দুষ্কৃতীরা সন্ত্রাস করে দলের নেতা ও কর্মীদের উপরে হামলা চালাচ্ছে বলে বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হচ্ছে। সেই সন্ত্রাস বন্ধ করার দাবিতে শুক্রবার আসানসোল দূর্গাপুরের পুলিশ কমিশনার অজয় ঠাকুরকে একটি স্মারকলিপি দিলো আসানসোল জেলা বিজেপির লিগ্যাল সেল। মোট ছয়টি দাবি লিগ্যাল সেলের স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে। এই স্মারকলিপির প্রতিলিপি রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা ও রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের কাছে পাঠানো হয়েছে। আসানসোলের বিজেপির দলীয় অফিসে শিল্পাঞ্চলের আক্রান্ত ১০০টি পরিবার ইতিমধ্যেই ঘরবাড়ি ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছে। তাদের উপর অত্যাচারের কাহিনী সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন আক্রান্ত পরিবারগুলোর প্রতিনিধি ছাড়াও বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র তিওয়ারি, লক্ষণ ঠাকুর, কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায় সহ অন্যান্য নেতারা। বৃহস্পতিবার এই দলীয় অফিসে এসে আক্রান্ত পরিবারগুলোর সাথে বিস্তারিত ভাবে কথা বলে খোঁজ খবর নিয়ে আবারও কলকাতায় চলে যান আসানসোলের সংসদ বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেন একজন অসাংবিধানিক মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এর চেয়ে বেশি কিছু আশা করা যায় না। আমাদের জাতিজু করতে হবে সংবিধান মেনে করতে হবে।এই প্রসঙ্গে শুক্রবার স্মারকলিপি দেওয়ার পরে বিজেপি লিগ্যাল সেলের তরফে আইনজীবী পীযুষ কান্তি গোস্বামী বলেন, গত ২ মে রাজ্য বিধান সভা নির্বাচনের ফল বেরোনোর পরে আসানসোলের বিভিন্ন এলাকায় তৃনমুল কংগ্রেসের গুন্ডারা সন্ত্রাস চালাচ্ছে। বিশেষ করে জামুড়িয়া ও পান্ডবেশ্বরের পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ। সবমিলিয়ে ১০০ পরিবার ঘর ছাড়া। তাদের ঘরবাড়িতে হামলা করে ভাঙ্গচুর চালিয়ে আগুন লাগানো হয়েছে। সেইসব পরিবারের সদস্যরা আসানসোল জেলা বিজেপির কার্যালয়ে এসে আশ্রয় নিয়েছে। তারা আতঙ্কিত। পাশাপাশি আসানসোল বাজার সহ বিভিন্ন এলাকায় দলের পার্টি অফিসে হামলা করে ভেঙে দেওয়া হয়েছে। জিনিস লুঠ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, লিগ্যাল সেলের তরফে ছয় দফা দাবি করা হয়েছে। বলা হয়েছে, তৃনমুল কংগ্রেসের যেসব গুন্ডারা হামলা চালাচ্ছে তাদেরকে গ্রেফতার করতে হবে। তাদের নিরাপত্তা দিয়ে বাড়িতে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করতে হবে। ঐসব পরিবারকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে হবে। পীযুষবাবু বলেন, পুলিশ কমিশনারকে আমাদের দাবি পূরণের জন্য দ্রুত পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। তা না হলে আমরা বৃহত্তর আন্দোলনে নামবো।  যদিও তৃনমুল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বিজেপির লিগ্যাল সেলের করা অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। দলের রাজ্য সম্পাদক ভি শিবদাসন তরফে দাসু এদিন বলেন, দলনেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের সব স্তরের নেতা ও কর্মীদের সংযত হতে বলেছেন। কেউ যাতে আইন নিজের হাতে না নেয় তাও বলা হয়েছে। আসানসোল দূর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের অফিস সূত্রে বলা হয়েছে, সব দাবি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *