Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

জেলা রাজ্য

দল বিরোধী মন্তব্য করায় তন্ময় ভট্টাচার্যকে শোকজ সিপিএমের

বঙ্গবাণী ব্যুরো ডেস্ক: একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফলপ্রকাশের পর মানুষের রায়কে ‘সুচিন্তিত রায়’ হিসেবে সম্মান জানাতে গিয়ে বিপদে পড়লেন সিপিএম প্রার্থী তন্ময় ভট্টাচার্য । নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর একের পর এক ক্ষোভ উগরে দিলেন দলীয় শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে।প্রাক্তন বিধায়ক তন্ময় ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে দল বিরোধী মন্তব্যের অভিযোগের ভিত্তিতে শোকজ করল সিপিএমের জেলা কমিটি।

এবছরের বিধানসভা নির্বাচনে দমদম উত্তর কেন্দ্রের সিপিএমের প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়ে ছিলেন তন্ময় ভট্টাচার্য। অন্যদিকে তৃণমূলের প্রার্থী হয়েছিল চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য এবং বিজেপির তরফের দাঁড়িয়েছিলেন অর্চনা মজুমদার। ২০১৬ সালে বিধানসভা নির্বাচনে তন্ময় ভট্টাচার্য জয়ীলাভ হলেও এবারে ৯৫,৪৬৫ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। ভোটের ফল প্রকাশ্যে আসতেই মেজাজ হারান তন্ময় ভট্টাচার্য। সিপিএমের রাজ্যজুড়ে এবছরের নজিরবিহীন এরূপ ভরাডুবির জন্য সরাসরি তিনি শীর্ষ নেতৃত্বের দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তুলেন। তিনি বলেন,” একটা গোটা পার্টির শরীরে যখন অজস্র রকমের ভুল অসুখ দানা বাঁধছে এ যে কত বড় দুঃখজনক ঘটনা, কত বড় অকল্পনীয় ঘটনা, সেটা নিশ্চয় সকলে বুঝেছে ।বাংলার মাটিতে ধর্ম কোনদিনও রাজনীতিকে নিয়ন্ত্রণ করেনি। বাংলা কোনদিনও জাতপাত কে প্রশ্রয় দেয়নি”। পরক্ষণেই তিনি পুরোনো ভোটের ব্যবধানের প্রসঙ্গ টেনে এনে তোপ দাগেন শীর্ষ নেতৃত্বের ওপর। তিনি বলেন ,” তিরিশ লক্ষ ভোটের ব্যবধান ছিল মাত্র তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে বাম-কংগ্রেস জোটের অর্থাৎ প্রতিটি বুথে মাত্র ৪২ টি ব্যবধান ছিল এটা কোন ব্যবধানই নয় ।সমস্যাটা হল তারপরে। নির্বাচনের ফলাফল বেরোনোর পরে জোট নিয়ে মন্তব্য শুরু হল দলের মধ্যে।

পঞ্চায়েতে জোট হল না, উনিশের লোকসভায় জোট হলো না, আবার একুশের বিধানসভায় জোট হল আর তারপরেই এই ভরাডুবি। এর দায় অবশ্যই শীর্ষ নেতৃত্বের। কারণ এই কাজটা আমি বা আমার কোন নিচুতলার কর্মীরা বসে করিনি সিদ্ধান্ত আপনারা নিয়েছেন এর দায়ভার সম্পূর্ণ আপনাদের। তরুণ প্রার্থী এবং পার্টির ভাবনায় তারুণ্যের এই দুটোর ভেতরে বড় ফারাক ।পার্টির ভাবনায় তারুণ্য আনতে পারলাম না এটাই আফশোস “। এখানেই তিনি থামেননি এরপরও তিনি বলেন ,”পুরো সিস্টেমটাই আজ উলঙ্গ হয়ে গেছে”।এই বিস্ফোরক অভিযোগকে কেন্দ্র করে তোলপাড় হয় কমিউনিস্ট পার্টির অন্দরে আর তারপরেই তাকে দল থেকে বহিষ্কার করার জন্য সরব হন দলের একাংশ কর্মকর্তারা। সেই প্রেক্ষিতে প্রাক্তন বিধায়ক কে শোকজ করল জেলা কমিটির কর্মকর্তারা। যদিও এ প্রসঙ্গে তন্ময় বাবু জানান, “পার্টিতে এটাকে শোকজ বলে না ,জেলার পার্টি আমার নামে শুধুমাত্র একটা বিবৃতি পাঠিয়েছে মাত্র।”

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *