Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

জেলা

অক্সিজেন ব্যাঙ্ক তৈরী করছে পাল্লারোড পল্লীমঙ্গল সমিতি

বঙ্গবাণী নিউজ, পূর্ব বর্ধমান: এবার বৃহত্তরভাবে ব্লকে ব্লকে অক্সিজেন ব্যাঙ্ক তৈরীর জন্য এগিয়ে এলেন মেমারির পাল্লারোড পল্লীমঙ্গল সমিতি। কয়েকদিন আগেই বর্ধমান দক্ষিণের তৃণমূল বিধায়ক খোকন দাসের হাতে ১০টি অক্সিজেন সিলিণ্ডার পৌঁছে দিয়েছেন তারা। বিনা খরচায় একমাত্র যাঁদের সত্যিই অক্সিজেন প্রয়োজন সেই চাহিদা মেটানোর জন্য এই অক্সিজেন সিলিণ্ডার দেওয়া হয়েছে। এবারে বর্ধমান উত্তর বিধানসভার তৃণমূল বিধায়ক নিশীথ মালিকের জনসেবা কেন্দ্র রামনগরে খোলা হল অক্সিজেন ব্যাঙ্ক।

পাল্লারোড পল্লীমঙ্গল সমিতির সম্পাদক সমিতির সম্পাদক সন্দীপন সরকার বলেন, ‘বিধায়ক নিশীথ মালিকের জনসেবা কেন্দ্রে ১৫টি অক্সিজেন সিলিণ্ডার দিয়েছি। এরমধ্যে একটি সিলিণ্ডার দেওয়া হল বিধায়ক তহবিল থেকে চালু করা অ্যাম্বুল্যান্সের জন্য। এতদিন ওই এ্যাম্বুলেন্সে অক্সিজেন সিলিণ্ডার ছিল না। যেখানে অক্সিজেন সিলিণ্ডার দিচ্ছি, আমরা সেখানে নজরদারি রাখছি। কোনোরকম যাতে অক্সিজেন সিলিণ্ডার নিয়ে অবৈধ বা অমানবিক কাজ না হয় সেটার জন্যই।

বর্ধমান উত্তর ও দক্ষিণের পর এবার মেমারি ও জামালপুরের বিধায়কের হাতেও একইভাবে অক্সিজেন সিলিণ্ডার পৌঁছে দেবার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’  কোনো মানুষ যাতে অক্সিজেনের অভাবে মারা না যায় তা নিশ্চিত করতেই আমাদের এই উদ্যোগ।’ বিধায়ক নিশীথ মালিক বলেন, ‘করোনা মহামারিতে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন এবং অক্সিজেনের অভাবে মারা যাচ্ছেন তাকে ঠেকাতে যেভাবে পল্লীমঙ্গল সমিতি এগিয়ে এসেছে তা নজীরবিহীন। বর্ধমান উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রে আমরা চেষ্টা করবো কোনো মানুষ যেন অক্সিজেনের অভাবে মারা না যায়।’ গোটা রাজ্যের পাশাপাশি পূর্ব বর্ধমান জেলাতেও করোনা আক্রান্তদের অক্সিজেন সংকট অব্যাহত। শুক্রবারও জেলায় নতুন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৬৮৫ জন। মারা গেছেন ৩জন। এমতাবস্থায় বিভিন্ন জায়গায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সহ রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে যুদ্ধকালীন তত্পরতায় অক্সিজেন ব্যাঙ্ক তৈরীর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। নির্বাচনের আগে থেকেই এব্যাপারে বামেদের পক্ষ থেকে রেড ভলেন্টিয়ার তৈরী করা হয়। নিঃশব্দেই কাজ করে চলেছেন তারা । কারও অক্সিজেন, কারও ওষুধ, কারও পথ্য সবই বাড়ির দরজায় গিয়ে পৌঁছে দিচ্ছেন রেড

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *