Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

জেলা রাজ্য

সামাজিক দূরত্ব দূরে সরিয়ে মদের দোকানের সামনে লম্বা লাইন

বঙ্গবাণী নিউজ,পশ্চিম মেদিনীপুরঃ দেশ জুড়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। এই অতিমারির সময়ে লাইন দেখলেই মনে হয় ভ্যাকসিন নেওয়ার লাইন বা করোনা পরীক্ষার লাইন। প্রতিদিন সকাল থেকে বিভিন্ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সামনে লম্বা লাইন পড়তে দেখা যাচ্ছে।  কিন্তু সে তো সকালে! শনিবার বিকেলে বিভিন্ন শহরে লম্বা লম্বা লাইন দেখা গেল মদের দোকান গুলোর সামনে। যা দেখে তাজ্জব অনেকেই। অনেকে ঠাট্টা করে বলছেন করোনার ভ্যাকসিন বা ওষুধ না হলেও চলবে, সুরা চাই ই…।   

করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলায় রবিবার থেকে রাজ্যে আরও কিছুটা কড়া পদক্ষেপ গ্রহন করছে রাজ্য সরকার। কার্যত আংশিক লকডাউন। কিছু কিছু দোকান নির্দিষ্ট সময়ের জন্য খোলা থাকবে। কিন্তু ১৫ দিন মদের দোকান বন্ধ, এই ঘোষণা শুনেই মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ল সুরা প্রেমীদের। মদ ছাড়া ১৫ দিন কাটানো অসম্ভব। বিকেল থেকে লম্বা লাইন পড়ল মদের দোকান গুলির সামনে। দূরত্ববিধি চূলোয় যাক। মদ কিনতে আবার  দূরত্ববিধি?

সারা রাজ্যের বিভিন্ন শহরের সঙ্গে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বিভিন্ন মদের দোকানের সামনেও লম্বা লাইন পড়েছে শনিবার। মেদিনীপুর শহরের রেল ওভারব্রীজ সংলগ্ন এক মদের দোকানে লাইন দেওয়া পলাশ দাস (নাম পরিবর্তিত) বলেন, গতবার লকডাউনের সময় অনেক কিছু পরিষেবা বন্ধ থাকলেও মদের দোকান খোলা ছিল। এবার আরো কড়া পদক্ষেপ। নির্দিষ্ট সময়ের জন্য মিষ্টির সহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দোকানের মতো মদের দোকানো ছাড় দেওয়া উচিত ছিল। বাধ্য হয়ে মানুষ লাইন দিয়েছে মদের দোকান গুলির সামনে।’   

সংক্রমণ এড়াতে বন্ধ থাকছে সমস্ত সরকারি-বেসরকারি অফিস। বন্ধ থাকবে পরিবহন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া চলবে না অটো, ট্যাক্সিও। বাজার খোলা থাকবে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য। শনিবার বিকেল থেকে মদ কেনার লাইনে ভিড় পুরুষ মহিলাদের। কেউ বলছেন স্বামীর জন্য কিনতে এসেছি। কেউ বললেন, না খেলে খুম আসেনা।

মুহুর্তের মধ্যে মদের দোকানের সামনে লম্বা লাইনের ছবি ছড়িয়ে পড়ল সোশ্যাল মিডিয়াতেও। যা দেখে নানা জনের নানা মন্তব্য। মেদিনীপুরের বাসিন্দা পৌলমী রায়, সঞ্জীব দাস’রা বলেন, সরকারের এই হঠাৎ সিদ্ধান্তে ফুটে উঠল আসল চেহারা। মদ কেনার জন্য উধাও হয়ে গেল সামাজিক দূরত্ব। যা সত্যিই ভাবা যায় না।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *