Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

জেলা

‘মাছ মাস্টার’ এর স্রষ্টা স্বরূপ দত্ত প্রয়াত

বঙ্গবাণী নিউজ, পূর্ব বর্ধমান: দীর্ঘ রোগভোগের পর প্রয়াত হলেন বর্ধমান পুরসভার বিদায়ী চেয়ারম্যান ডাঃ স্বরূপ দত্ত। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। সোমবার সকালে বর্ধমানের একটি বেসরকারী নার্সিংহোমে তিনি মারা যান। তাঁর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই অসংখ্য মানুষ তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে তাঁর খোসবাগানস্থিত বাড়িতে হাজির হন। এদিন তাঁর মৃতদেহ বর্ধমান পুরসভায় নিয়ে আসা হলে সেখানে তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানান পুরসভার কর্মী, অফিসার সহ বিদায়ী পুরবোর্ডের সদস্যরাও। উপস্থিত ছিলেন বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের তৃণমূল বিধায়ক খোকন দাস সহ জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃবৃন্দরাও। উল্লেখ্য, ২০১১ সালের নির্বাচন থেকেই তৃণমূলের সঙ্গে জড়িয়ে রাজনৈতিক জীবন শুরু।বামফ্রণ্টকে হারিয়ে তৃণমূল রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর বর্ধমানের বিশিষ্ট শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ স্বরূপ দত্ত ২০১৩ সালে পুরসভার নির্বাচনে ৩০নং ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত হয়ে বর্ধমান পুরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

২০১৮ সালে পুরবোর্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে যাবার পর তিনি নিজেকে অনেকটাই গুটিয়ে নেন। ইতিমধ্যে তিনি শারীরিক সমস্যায় ভুগতে শুরু করেন। বেশ কিছুদিন ধরে তিনি শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। প্রয়াত লেখিকা মহাশ্বেতাদেবীর অত্যন্ত ঘনিষ্ট ছিলেন স্বরূপ দত্ত। সেই সুবাদেই তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে তাঁর আসা।ওয়ার্ডে তাঁর হয়ে যিনি মুলত দেখাশুনা করতেন সেই তৃণমূল নেতা আব্দুল রব বলেন, ‘একজন শিক্ষিত মানুষকে হারালাম আমরা। ওনার কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছি।’ বিধায়ক খোকন দাস বলেন, ‘পুরসভায় ক্ষমতায় আসার পরে বই কিনে পুর আইন শিখেছিলেন। আমাদেরও তৈরী করেছিলেন। অনেকেই অনেক কথা বলে। ওনার কাছে অনেক কিছুই শিখেছি। রাজনীতি সেভাবে কোনদিন না করলেও শেষ দিন অবধি আমাকে উনি নানাভাবে সাহায্য করেছেন রাজনাতির বিষয়েও। একজন অভিভাবক কে হারালাম।’ তাঁর লেখা বই ‘মাছ মাস্টার’ অ্যাকাডেমি পুরস্কার পেয়েছিল। তাঁর লেখা অনান্য বইয়ের মধ্যে  মাছ মাস্টার অন্যতম। মেয়াদ শেষে বেশ কিছু বিষয় নিয়ে লেখালিখি করছিলেন। শারীরিক সমস্যায় সেটা সম্ভব হয়নি শেষ অবধি। মৃত্যুকালে স্ত্রী, মেয়ে, ছেলে ও জামাতা ও নাতি-নাতনিদের রেখে গেলেন তিনি। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া চিকিৎসক মহলেও। বর্ধমান জেলার আইএমএর সভাপতিও ছিলেন তিনি।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *