Latest Trending Online News Portal : Bongobani.com

Sports News District News National News Updates

জেলা

শ্মশানে বাড়ছে মৃতদের ভিড়

বঙ্গবাণী নিউজ, পূর্ব বর্ধমান : করোনা সংক্রমণের জেরে প্রতিদিনই বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। অন্যদিকে, সাধারণ রোগীদের মৃত্যু – সব মিলিয়ে সকাল থেকে রাত বর্ধমানের নির্মলঝিল শ্মশানে দীর্ঘ লাইন। তারই মাঝে বন্ধ হয়ে রয়েছে গ্যাস চুল্লী। চলছে যুদ্ধকালীন তত্পরতায় মেরামতির কাজ। সবথেকে বেশি সমস্যা দেখা দিয়েছে গ্যাস চুল্লী বন্ধ থাকায় কাঠে মৃতদেহ সত্কার করতে গিয়ে নাজেহাল হয়ে পড়ছেন শ্মশানযাত্রীরা। কারণ চলতি সময়ে মাঝে মাঝেই কালবৈশাখীর তাণ্ডবে নামছে অঝোর ধারায় বৃষ্টি। সেই বৃষ্টিতে ভিজে যাচ্ছে কাঠ। সেই ভিজে কাঠে মৃতদেহ পোড়ানোয় সমস্যা তীব্র আকার ধারণ করছে। উল্লেখ্য, এরই পাশাপাশি চালু রয়েছে ইলেকট্রিক চুল্লী। কিন্তু যেভাবে মৃতদেহের লাইন পড়ছে তাতে একটি ইলেকট্রিক চুল্লী এবং কাঠের চুল্লীতে সংকুলান হচ্ছে না। এমতবস্থায় সাধারণ মানুষ চাইছেন দ্রুত গ্যাস চুল্লীকে ঠিক করা হোক। বর্ধমান পুরসভা সূত্রে জানা গেছে, করোনায় মৃতদেহ বাড়তে থাকায় সন্ধ্যে ৬টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত সময়সীমা করা হয়েছে। অন্য সময়ে সাধারণ মৃতদেহ সত্কার করা হচ্ছে।

গড়ে প্রতিদিন ১০-১৫টি করে করোনায় মৃতদেহ আসছে। এদিকে, সমস্যা দেখা দিচ্ছে যে সমস্ত সাধারণ মৃতদেহ সন্ধ্যের পর শ্মশানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে সেগুলিকে পরের দিন সকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে। এদিকে, এই বিষয় সম্পর্কে বর্ধমান পুরসভার এক্সিকিউটিভ অফিসার অমিত গুহ হলেন, ‘গ্যাস চুল্লীর মেরামতির কাজ দ্রুততার সঙ্গে করার চেষ্টা করছেন। আশা করছি কয়েকদিনের মধ্যেই তা চালু করা যাবে।  নির্মল ঝিল শ্মশান থেকে যাতে করোনা সংক্রমণ না ছড়ায় সেজন্য নিয়মকরে কয়েকঘণ্টা অন্তর সেখানে স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা করা হয়েছে।’ নবনির্বাচিত বিধায়ক নির্বাচিত হবার পর নিজের বিধানসভা এলাকা রায়নায় দামোদরের ধারে একটি ইলেকট্রিক চুল্লী নির্মাণ করার কথা ঘোষণা করলেন রায়নার তৃণমূল বিধায়ক শম্পা ধারা। তিনি বলেন,‘বিধায়ক হিসাবে নির্বাচিত হয়ে বর্তমান পরিস্থিতিতে এটাই প্রথম কাজ। রায়না এলাকায় কোনো ইলেকট্রিক চুল্লী না থাকায় অনেককেই ত্রিবেণী বা বর্ধমানে যেতে হয়। তাই এই অসুবিধা দূর করতে একটি ইলেকট্রিক চুল্লী তৈরী করার জন্য  উদ্যোগ নেব।’

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *